ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮ | ১২ : ৪৫ মিনিট

Qamrul Hassan Bhuiyanরাষ্ট্রীয় মর্যাদায় চিরশায়িত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, লেখক মেজর (অব.) কামরুল হাসান ভূঁইয়া। গতকাল সোমবার দুপুরে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে সিএমএইচে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। বাদ আসর সেনানিবাস জামে মসজিদে প্রথম জানাজা ও বনানী ডিওএইচএসএ দ্বিতীয় জানাজা শেষে বনানী সেনা নিবাস কবরস্থানে দাফন করা হয়।

কামরুল হাসান ভূঁইয়া ১৯৫২ সালের ২৪ জুলাই কুমিল্লায় জন্মগ্রহণ করেন। যশোর জিলা স্কুল এবং ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজে পড়াশোনা করেছেন তিনি। এরপর সেনাবাহিনীতে যোগ দেন এবং ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি অংশগ্রহণ করেন। তরুণ গণযোদ্ধা হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের ২ নম্বর সেক্টরে যোগ দেন।

কামরুল ইসলাম ভূঁইয়া গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর লিবারেশন ওয়ার স্টাডিজের চেয়ারম্যান ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধবিয়ষক সাহিত্যে অবদান রাখায় ২০১৮ সালে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার পান তিনি। গত বছর মুক্ত আসর এর ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তাঁকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

Qamrul-Hassan-Bhuiyan1কামরুল হাসান ভূঁইয়া প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বইগুলো হলো ‘জনযুদ্ধের গণযোদ্ধা’, ‘বিজয়ী হয়ে ফিরব নইলে ফিরবই না’, ‘২ নম্বর সেক্টর এবং কে ফোর্স কমান্ডার-খালেদের কথা’ (সম্পাদিত), ‘একাত্তরের কন্যা, জায়া, জননীরা’, ‘পতাকার প্রতি প্রণোদনা’, ‘মুক্তিযুদ্ধে শিশু-কিশোরদের অবদান’, ‘একাত্তরের দিনপঞ্জি’ ইত্যাদি।

মেজর (অব.) কামরুল হাসান ভূঁইয়া আমৃত্যু মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে গবেষণা করে গেছেন। বেইজিং ল্যাংগুয়েজ অ্যান্ড কালচার ইউনিভার্সিটি থেকে চীনা ভাষায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি সেনাবাহিনী থেকে স্বেচ্ছায় অবসর নেন।

Comments

comments