ঢাকা, বৃহষ্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ০৬ : ৩১ মিনিট

ja

হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নে কর্মকান্ড। ছবি : সংগৃহীত

দেশের মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতনতা এবং সেই বিষয় সঠিকভাবে তথ্য পৌঁছে দেবার জন্য কাজ করে চলছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান অনুষদের একদল তরুণ-তরুণীর গড়া হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়ন 
হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নে মূল লক্ষ হলো বিশ্ববিদালয়সহ দেশের জনগনের স্বাস্থ্য সচেতনতা গড়ে তোলা। সেই লক্ষে এই বছরের শুরুতে জীববিজ্ঞান অনুষদের সবগুলো বিভাগের শিক্ষার্থীদের নিয়ে হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নের যাত্রা শুরু হয়।  প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত  সবাই পরিশ্রম করে যাচ্ছে  শিক্ষার্থীদের মাঝে স্বাস্থ্যবিষয়ক বিভিন্ন সচেতনতামূলক আয়োজন।

হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নের প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে আছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আব্দুর রফিক জব্বার হাওলাদার। এছাড়া উপদেষ্টামণ্ডলিতে আছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ এন্ড ইনফরম্যাটিক্স বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ও নিপসমের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. আব্দুর রহমান (পিএইচডি)।

অধ্যাপক ডা. আব্দুর রহমান সংগঠনটি সম্পর্কে বলেন. ‘ বাংলাদেশের মত জনসংখ্যাবহুল দেশে স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়ন এমনই একটি সংগঠন যেটি কিনা সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যাবিষয়ক কর্মশালা ও সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান আয়োজন করে আসছে। বর্তমানে ও ভবিষ্যতে এর উত্তরোত্তর সাফল্যা কামনা করছি ‘

poster-final-converted

নেতৃত্ববিষয়ক কর্মশালার পোস্টার

সংগঠনটির উদ্যোগক্তা ও সভাপতি পাবলিক হেলথ এন্ড ইনফরম্যাটিক্স বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী  জাহিদুল হাসান অপু বলেন, ‘আমাদের এ সংগঠন প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই আমরা চেয়েছি মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও স্বাস্থ্য সচেতনতা নিয়ে কাজ করতে। সব বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্য হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নই প্রথম যারা কিনা সরাসরি স্বাস্থ্যবিষয়ক নিজেদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে থাকে। যেমন ধরুন, এ বছর ২৬ সেপ্টেম্বর আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ওয়ার্ল্ড কন্ট্রাসেপশন ডে’ ঘটা করে পালন করে শিক্ষার্থীদের মাঝে। এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা্ আলোচনা করি।’

‘হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়ন’ বেশি কিছু শিক্ষামূলক সেমিনার আয়োজনের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন করেছে।  এ বিষয়ে হেলথ এ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নের অন্যতম সদস্য ও হেড এক্সিকিউটিভ তানজিদা ইয়াসমিন বলেন, ‘‘জনসংখ্যার ঊর্ধ্বগতি কমাতে প্রত্যেকে উচিত স্বাস্থ্যা সম্পর্কিত স্বচ্ছ ধারণা থাকা।’

ja1সংগঠনের আরেক সদস্য মাসরুক আহমেদ রুদ্র বলেন, ‘হেলথ এ্যাওয়ারনেস ইউনিয়ন একটি পরিবার। সব বিভাগের শিক্ষার্থীদের সমন্বয়েই আমাদের সংগঠন সাফলতার মুখ দেখেছে।’

সংগঠনে প্রায় ৩০০ জন সদস্য। এ্ সর্ম্পকে সংগঠনের কনিষ্ঠ সদস্য মামুন উর রশিদ প্রান্ত বলেছেন, ‘আমাদের পরিকল্পনা ভবিষ্যতে হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়নের কর্মকাণ্ডগুলো দেশের অন্যান্য বিদ্যাপীঠে ছড়িয়ে দেয়া, যাতে করে দেশের প্রতিটি জায়গায় নাগরিকদের মাঝে স্বাস্থ্য সচেতনতা প্রতিষ্ঠা লাভ করে।’

হেলথ অ্যাওয়ারনেস ইউনিয়ন ও ‘মুক্ত আসর; এর আয়োজনে আগামী ২০ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যলয়ের নতুন কলা ভবনে ‘বলিষ্ঠ নেতৃত্বের জন্য মানসিক শক্তির ভূমিকা’শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। কর্মশালা পরিচালনা করবেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটডের সহকারি অধ্যাপক আহমেদ হেলাল। অনুষ্ঠানে সহযোগীতা করছেন লুমেক্স আইটি ও বাংলা ডিকশনারি। সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেব থাকবে ওখানে ডটকম, নন্দনবাড়ী ও স্বপ্ন ‘৭১।

Comments

comments