ঢাকা, রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ | ০৯ : ০৯ মিনিট

ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আজ। তিনি ১৯৬৩ সালের ৩১ আগস্ট কলকাতায় জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর বাবা-মা উভয়েই চলচ্চিত্র জগতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। বাবা সুনীল ঘোষ ছিলেন তথ্যচিত্র-নির্মাতা ও চিত্রকর। ঋতুপর্ণ ঘোষ সাউথ পয়েন্ট হাই স্কুলের ছাত্র ছিলেন। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে ডিগ্রি অর্জন করেন। অর্থনীতির ছাত্র হলেও  তিনি কর্মজীবন শুরু করেছিল একটি বিজ্ঞাপন সংস্থার ক্রিয়েটিভ আর্টিস্ট হিসেবে। ১৯৯২ সালে মুক্তি পায় তাঁর প্রথম ছবি হীরের আংটি । দ্বিতীয় ছবি উনিশে এপ্রিল  মুক্তি পায় ১৯৯৪ সালে। এই ছবির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ কাহিনিচিত্র বিভাগে জাতীয় পুরস্কার পান।

ঋতুপর্ণ ঘোষ ছিলেন সত্যজিৎ রায়ের অনুরাগী। দুই দশকের কর্মজীবনে তিনি ১২টি জাতীয় পুরস্কারের পাশাপাশি কয়েকটি আন্তর্জাতিক পুরস্কারও পেয়েছিলেন। ২০১৩ সালের ৩০ মে কলকাতায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়। বিভিন্ন সময়ে নানা রকমের ঘটনাগুলো নিয়ে আমাদের বিশেষ আয়োজন ‘ছবিতে নানা সময়ে বাংলা চলচ্চিত্রে যুগস্রষ্টা ঋতুপর্ণ ঘোষ’। ছবিগুলো সংগ্রহে..

Rituparno-Ghosh-01

ঋতুপর্ণ ঘোষ  (জন্ম: ৩১শে অগস্ট, ১৯৬৩ – মৃত্যু: ৩০শে মে, ২০১৩)

Rituparno-Ghosh-10

কি জানি বলছেন মা।  তা শুনে ছোট্ট ঋতুপর্ণ খুশিতে ভরপুর

Rituparno-Ghosh-04

দিদার কোলে

Rituparno-Ghosh-13

মায়ের সঙ্গে ‍দুইভাই। ইন্দ্রনীল ও  সৌরনীল

Rituparno-Ghosh-09

 

মায়ের সঙ্গে বেড়াতে ‍দুইভাই

Rituparno-Ghosh-14

তরুণ ঋতুপর্ণ ঘোষ

Rituparno-Ghosh-15

রঙ তুলিছে আঁকছেন জীবনের রঙ

Rituparno-Ghosh-11

বাবা মায়ের সঙ্গে দুই ভাই ঋতু আর চিঙ্কু

Rituparno-Ghosh-05

‘চোখের বালি’ সেটে প্রসেনজিৎ আর ্ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে মহড়া

Rituparno-Ghosh-08

স্বপ্নভরা দু’চোখে

Rituparno-Ghosh-03

গভীর মনোযোগ দিয়ে পড়ছেন

Rituparno-Ghosh-07

ভাবনায় মগ্ন

Rituparno-Ghosh-01.1

কাজের ফাঁকে বন্ধুর সঙ্গে আড্ডা

Rituparno-Ghosh-16

ঋতুপর্ণ ঘোষ ও অমিতাভ বচ্চন (ডান দিকে), দ্য লাস্ট লিয়ার ছবির সেটে। [উইকিপিডিয়া]

 

 

 

 

 

Comments

comments